Tuesday, 7 April 2020

সিসিইউ এবং মেডিসিনের মেল ওয়ার্ডকে বন্ধ করে দিতে বাধ্য হল এন আর এস

ওয়েব ডেস্ক ৭ই এপ্রিল ২০২০ : কলকাতার নীলরতন সরকার বা এনআরএস হাসপাতালে শনিবার এক রোগীর মৃত্যুকে ঘিরে ওই হাসপাতালের পুরুষ মেডিসিন ওয়ার্ড এবং সিসিইউ বা ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। 'হিমোফেলিয়া' রোগ নিয়ে দক্ষিণ কলকাতার মহেশতলার ৩৪ বছরের এক যুবক গত ৩০ মার্চ ভর্তি হন এই হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে। এরপর এই যুবকের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ওই হাসপাতালের সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসকরা এরপরেই বুঝতে পারেন ওই যুবক সম্ভবত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। রিপোর্ট পজিটিভ আসে। শনিবারই ওই যুবক মারা যান। এরপরেই এনআরএস রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান ও তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন সিসিইউ এবং মেডিসিনের মেল ওয়ার্ডকে বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দেন । বলা হয়, ওই দুটি ওয়ার্ডকে জীবাণুমুক্ত করা না পর্যন্ত ওখানে রোগী রাখা যাবে না। একইসঙ্গে ওই রোগীর চিকিৎসার সঙ্গে যুক্ত ৮১ জন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার নির্দেশ দেন।
নীলরতন হাসপাতালে গতকাল সোমবার আরেকটি ঘটনা ঘটে। এই হাসপাতালে ফুসফুসে ক্যান্সার নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন মুর্শিদাবাদের এক বাসিন্দা। গতকাল সোমবার তাঁর বুকের এক্সরে করার জন্য জরুরি বিভাগ থেকে নিয়ে যাওয়া হয় এক্সরে দপ্তরে। সেখানেই এক্সরে করার আগেই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। চিকিৎসকরা মনে করেন, ওই রোগী সম্ভবত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরেই ওই রোগীর আত্মীয়রা হাসপাতালকে না জানিয়ে রোগীর মরদেহ নিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ এখন ওই রোগীর খোঁজে নেমেছেন। ওই রোগী সত্যি করোনা রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা তা যাচাই করতে চাইছেন।

No comments:

Post a Comment

loading...