Thursday, 14 May 2020

রেমডেসিভি ১২৪টি দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার লাইসেন্স পেল ভারতীয় সংস্থা ‘জুবিলিয়্যান্ট লাইফ সায়েন্স লিমিটেড’

ওয়েব ডেস্ক ১৪ই  মে  ২০২০:করোনায় এখনও কার্যকর কোনো প্রতিষেধক আবিস্কার করা না গেলেও ‘রেমডেসিভির’ করোনায় ধীর গতিতে কার্যকরী একটি ওষুধ বলে ব্যাখা করেছেন মার্কিন গবেষকরা। আর তাই এ ওষুধ যাতে সর্বত্র পাওয়া যায়, সে জন্য মার্কিন ওষুধপ্রস্তুতকারক সংস্থা ‘গিলিড সায়েন্সেস’-এর সঙ্গে চুক্তি হয়েছে ভারতীয় সংস্থা ‘জুবিলিয়্যান্ট লাইফ সায়েন্স লিমিটেড’র। এই চুক্তির ফলে ভারত-সহ ১২৪টি দেশে রেমডেসিভির ওষুধ সরবরাহের লাইসেন্স পেল ভারতীয় সংস্থাটি।
জুবিলিয়্যান্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অন্য দেশে রেমডেসিভির সরবরাহের জন্য যে শুধুই ভারতীয় সংস্থাটির সঙ্গে গিলিডের চুক্তি হয়েছে, তা নয়। এই লাইসেন্স ‘নন-এক্সক্লুসিভ’। তবে আমেরিকা থেকে আনিয়ে রেমডেসিভির বিশ্বের অন্যত্র সরবরাহের পাশাপাশি করোনা রোগীদের দ্রুত সারিয়ে তুলতে অল্প ও মধ্যে আয়ের দেশগুলিতে ওষুধটি বানাতে বা তার উৎপাদন বাড়াতেও পারবে  সংস্থাটি। জুবিলিয়্যান্টের এই অধিকার থাকবে কয়েকটি উচ্চ আয়ের দেশেও।
করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য মার্কিন সংস্থা গিলিড সায়েন্সেসের বানানো রেমডেসিভির ওষুধটিকে ব্যবহারের জন্য এ মাসের গোড়ার দিকে জরুরি ভিত্তিতে অনুমোদন দেয় আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন।
মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা গিলিড জানিয়েছে, রেমডেসিভির ওষুধটিকে যাতে ভারত ও পাকিস্তানে‌ই বানানো যায় আর সেখান থেকে বিভিন্ন দেসে সরবরাহ করা যায়, সে জন্য দু’টি দেশের আরও কয়েকটি জেনেরিক ওষুধ সংস্থার সঙ্গে তারা দীর্ঘমেয়াদি চুক্তির পথে এগোচ্ছে। এমনকী, সে ক্ষেত্রে ভারত ও পাকিস্তানের ওই জেনেরিক ওষুধ সংস্থাগুলিকে প্রযুক্তি সহায়তা দেওয়ার কথাও জানিয়েছে মার্কিন ওষুধপ্রস্তুতকারক সংস্থাটি। তবে ভারতীয় সংস্থাটির সঙ্গে কী কী শর্তে তাদের চুক্তি হয়েছে, তা খোলসা করতে চায়নি গিলিড সায়েন্সেস।

No comments:

Post a comment

loading...