Saturday, 30 May 2020

কেন্দ্রের প্রয়োজনীয় সর্তর্কতার অভাবে পরিযায়ী শ্রমিকেরা করোনায় আক্রান্ত ,তুলোধোনা করলেন মমতা

ওয়েব ডেস্ক ৩০শে মে ২০২০:শ্রমিক এক্সপ্রেসের নামে, ভারতীয় রেলপথ “করোনার এক্সপ্রেস’ চালাচ্ছে এমনটাই বলে শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তীব্র ভাবে আক্রমণ শানালেন। পরিযায়ী শ্রমিকদের এবং অন্যান্য লোকদের বাড়ি ফেরাতে বিশেষ ট্রেনগুলিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “আইন সবার জন্য সমান তবে সমস্ত ট্রেন কেন সম্পূর্ণ ক্ষমতা নিয়ে চলছে? রেল কেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছে না? ট্রেনগুলিতে যাত্রীদের জল এবং খাবার দেওয়া হচ্ছে না।” তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে জানিয়েছেন, “শ্রমিক এক্সপ্রেসের নামে, ভারতীয় রেলপথ ‘করোনার এক্সপ্রেস’ চালাচ্ছে। অতিরিক্ত ট্রেন কেন চালানো হচ্ছে না। আমি একবার রেলমন্ত্রী ছিলাম। আমি কোচও বাড়িয়েছিলাম, তবে এখন কেন করা যাচ্ছে না? রেলওয়ে হটস্পট অঞ্চল থেকে বিপুল সংখ্যক লোকজনকে নিয়ে আসছে।”

শুক্রবারেই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন রাজ্য সরকারের জনবলের ক্ষমতা ৫০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৭০ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই প্রসঙ্গে বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “রাজ্যে একাধিক সঙ্কটের সাথে সাথে আমরা রাজ্য সরকারের জনবলের সক্ষমতা ৫০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৭০ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পুনরুদ্ধারের কাজ করাই শীর্ষস্থানীয় অগ্রাধিকার এবং জনবল বৃদ্ধি নিশ্চিত করবে যে জনসাধারণের পরিষেবা নিরবচ্ছিন্ন রয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “বেসরকারী সেক্টরে, আমি সবাইকে নিরাপদে থাকার জন্য, যথাসম্ভব বাড়ির ভিতরে থেকে কাজ করার এবং তাদের সর্বোত্তম দক্ষতার দেখানো জন্য অনুরোধ করছি। বেসরকারী সংস্থাগুলির স্বতন্ত্র ব্যবস্থাপনাগুলির সাথে কর্মক্ষমতা, সক্ষমতা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে এবং সে অনুযায়ী কাজ করার অগ্রাধিকার রয়েছে।”

মুখ্যমন্ত্রী তার বক্তব্যতে আরও বলেছিলেন, “লকডাউনের ন্যূনতম প্রভাব অব্যাহত থাকবে। পাটকল ও চা বাগানগুলি শতভাগ লোকবলের ক্ষমতা নিয়ে কাজ করবে। আমরা এতে একত্রিত হয়েছি। আপনাদের সকল সহযোগিতা এবং বোঝার ক্ষমতার সাথে আমি নিশ্চিত হই যে, বাংলার উত্থান হবে বিজয়ী। সেই সঙ্গে শুক্রবার তিনি আরও ঘোষণা করেছেন, ১ জুন থেকে রাজ্যের সমস্ত ধর্মীয় স্থান খোলা হবে এবং সেখানে ১০ জনের বেশি লোকের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না। সেই সঙ্গে ৮ জুন থেকে খুলে দেওয়া হবে সমস্ত  সরকারী, বেসরকারি অফিস।

No comments:

Post a comment

loading...