Monday, 1 June 2020

করোনার প্রভাবে বেহাল উত্তরাখন্ড , সদলবলে কোয়ারেন্টাইনে মুখ্যমন্ত্রী

ওয়েব ডেস্ক ১লা জুন  ২০২০:বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা মহামারি। তবে এ নিয়ে ভয়াবহ রাজনৈতিক সঙ্কটে পড়েছে উত্তরাখণ্ডের রাজ্য সরকার। কেননা ওই রাজ্যের এক মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী-সহ মন্ত্রিসভার সাত সদস্যের মধ্যে তিন জনই হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।
পর্যটনমন্ত্রী সতপাল মহারাজ সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর রোববার মুখ্যমন্ত্রীসহ রাজ্যের ওই তিন মন্ত্রীকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

গত শনিবার পর্যটনমন্ত্রীর স্ত্রীর নমুনায় প্রথম করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। রোববার সকালে মন্ত্রী, তার দুই ছেলে ও তাদের স্ত্রীদের নমুনাও কোভিড পজিটিভ প্রমাণিত হলে গোটা পরিবারকে হৃষিকেশের এইমস হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে পাঠান চিকিৎসকরা।

এর ফলে উত্তরাখণ্ড মন্ত্রিসভায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে রোববার করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত, বনমন্ত্রী হরক সিং রাওয়াত এবং রাজ্যের আরও এক মন্ত্রী তথা সরকারি মুখপাত্র মদন কৌশিককে।

কোয়ারেন্টাইনে যেতে হয়েছে ওই রাজ্যের মুখ্য সচিব ও স্বাস্থ্য সচিব-সহ শীর্ষ পর্যায়ের আরও বেশ কয়েকজন আমলাকেও।

জানা যায়, গত শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী রাওয়াতের নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন করোনায় আক্রান্ত পর্যটনমন্ত্রী সতপাল মহারাজ। বৈঠকে আরও অংশ নিয়েছিলেন মুখ্য সচিব, স্বাস্থ্য সচিব এবং বেশ কয়েক জন উচ্চ পর্যায়ের কূটনীতিক।

পর্যটনমন্ত্রীর করোনা পজিটিভ আসার পর মন্ত্রীর পরিবারের সদস্য ছাড়াও হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে তার দপ্তরের ১৭ জন কর্মীকে। তাদের দেরাদুনের এক বেসরকারি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে উত্তরখণ্ড শাসকদলের এই অবস্থায় কটূক্তি করতে ছাড়েনি রাজ্যের বিরোধী দল কংগ্রেস। দলের রাজ্য উপ-সভাপতি সূর্যকান্ত ধশমনা টিপ্পনি কেটে বলেছেন, ‘এই সমস্ত লোকজনের উপর সাধারণের দেখভালের দায়িত্ব রয়েছে। কিন্তু তারাই যদি কোয়ারেন্টাইনে থাকেন তা হলে রাজ্যবাসীকে মহামারির হাত থেকে কে রক্ষা করবে!’

No comments:

Post a comment

loading...