Tuesday, 30 June 2020

জবাব চাইলো সর্বোচ্চ আদালত ,পড়ুন

ওয়েব ডেস্ক ৩০শে  জুন  ২০২০: দেশে  তিন হাজার ৫০০ জন বিদেশি তবলীগ সদস্যদের ‘কালো তালিকাভুক্ত’ করার কারণ জানতে চেয়েছে  সুপ্রিম কোর্ট। সরকারের কাছে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়েছে  সর্বোচ্চ আদালত। ২৯ জুন, সোমবার বিচারপতি এএম খানউইলকর এই রুল জারি করেন।
এ সময় সুপ্রিম কোর্ট প্রশ্ন করে, এই নিষেধাজ্ঞার আগে নির্দিষ্ট নিয়ম মানা হয়েছে, নাকি স্রেফ নির্দেশিকা দিয়েই ওদের নিষিদ্ধ ঘোষণা করে দিয়েছে সরকার? এ সময় কেন্দ্র  সরকারের পক্ষ থেকে আদালতে উপস্থিত ছিলেন অ্যার্টনি জেনারেল তুষার মেহেতা।
বিচারপতি এএম খানউইলকর সরকারকে একপ্রকার তিরস্কার করেন বলেন, ‘যেটা জারি করা হয়েছিল সেটা সামান্য একটা সংবাদ বিবৃতি। এখানে কথাও বলা নেই যে, সব মামলা খতিয়ে দেখে, নোটিস পাঠিয়ে, নির্দেশিকা পাশ করিয়ে তবেই এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হয়েছে। কাউকে ব্যক্তিগত স্তরে নোটিস পাঠিয়ে তার ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে বলে মনে হচ্ছে না। এ বিষয়ে ভারত সরকারের অবস্থান কী, তা আমাদের জানান।

তিনি আরো বলেন, এই নিষেধাজ্ঞার আগে কি নির্দিষ্ট নিয়ম মানা হয়েছে? নাকি স্রেফ নির্দেশিকা দিয়েই ওদের নিষিদ্ধ ঘোষণা করে দেয়া হয়েছে?’

আগামী ২ জুলাই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন এ বিষয়ে সরকারকে অবস্থান স্পষ্ট করার নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত।

প্রসঙ্গত, সরকারি নির্দেশ অমান্য করে ধর্মীয় কার্যকলাপ এবং জমায়েত করার অভিযোগ এখন পর্যন্ত তবলীগ জামাতের প্রায় ৩৫০০ বিদেশি সদস্যকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে কেন্দ্র সরকার । বিশ্বের প্রায় ৩৫টি দেশের বাসিন্দা এই তালিকায় আছেন। আগামী ১০ বছর তারা ভারতে প্রবেশ করতে পারবে না।

No comments:

Post a comment

loading...