Tuesday, 28 July 2020

অবশেষে চীনা চিকিৎসক সত্যিটা বলতে বাধ্য হলেন , আলিমুদ্দিন সেই নির্বিকার

ওয়েব ডেস্ক ২৮শে জুলাই ২০২০:চীনের স্থানীয় কর্মকর্তারা প্রাথমিক সংক্রমণের মাত্রা ধামাচাপা দিয়েছিলেন অভিযোগ তুলেছেন দেশটির একজন চিকিৎসক। তিনি শুরুর দিকে চীনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত করেছিলেন। চীনের উহান শহরে এই রোগের চিকিৎসায় সাহায্য করেছিলেন প্রফেসর কুক ইয়ং ইওয়েন। তিনি আজ সোমবার বিবিসিকে জানান, শুরুর দিকে এরকম কিছু তথ্য প্রমাণ ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। এছাড়া এর প্রতিকারের চেষ্টাও ছিল খুব ধীর।
প্রফেসর কুক ইয়ং ইওয়েন বলেন, ‘আমরা যখন হুয়ানান সুপারমার্কেটে যাই, সেখানে তখন দেখার মতো কিছু ছিল না। কারণ ইতোমধ্যেই বাজারটি পরিষ্কার করে ফেলা হয়েছে। ফলে আপনি বলতে পারেন যে, অপরাধের আলামত ততোক্ষণে নষ্ট করে ফেলা হয়েছে। ফলে ভাইরাসটি কোন উৎস থেকে মানবদেহে এসেছে, সেটা আমরা চিহ্নিত করতে পারিনি।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমার সন্দেহ যে, তারা উহানে স্থানীয়ভাবে কিছু ধামাচাপা দিয়েছে। যেসব স্থানীয় কর্মকর্তার এসব তথ্য সরবরাহ করার কথা ছিল, তাদেরকে সেটা খুব দ্রুত করতে অনুমতি দেওয়া হয়নি।‘

ডিসেম্বরের শেষের দিকে যে ডাক্তার এই ভাইরাসের ব্যাপারে তার সহকর্মীদের সতর্ক করে দিয়েছিলেন কর্তৃপক্ষ তাকে শাস্তিও দিয়েছে।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে শুরুর দিকে চীনের ভূমিকা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। এজন্য দেশটির সমালোচনাও হচ্ছে। চীন সবসময়ই এ ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

No comments:

Post a comment

loading...