Sunday, 23 August 2020

ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করছে চীন ,উদ্বিগ্ন ভারত

ওয়েব ডেস্ক ২২ শে অগাস্ট ২০২০: চীন কৈলাস পর্বতের পাশে ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করছে বলে দাবি করছে ভারত। এজন্য একাধিক স্থাপনাও নির্মাণও করছে দেশটির। গত এপ্রিল মাসে এই নির্মাণকাজ শুরু করা হয়। সম্প্রতি সেই নির্মাণ কাজ শেষ করেছে চীন। এ তথ্য সামনে আসতেই নতুন করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

এক উপগ্রহ চিত্রে এই দৃশ্য ধরা পড়েছে। ১৬ আগস্ট ওই উপগ্রহ চিত্রটি প্রকাশ্যে আসে। 

ওই চিত্রে দেখা গেছে, ভারতীয় সীমান্ত থেকে মাত্র ৯০ কিলোমিটার দূরেই চীনের সেনাবাহিনী রণসজ্জার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ভূমি থেকে আকাশের মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র রাখার জন্য ছাউনি নির্মাণ করেছে চীন।

উপগ্রহ চিত্র দেখে সংশ্লিষ্টরা জানায়, চারটি মাঝারি পাল্লার ক্ষেপনাস্ত্র, তিনটি রাডার রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর থেকে খানিকটা দূরে আরো তিনটি রাডার রাখার জায়গা তৈরি করা হয়েছে। এইচকিউ-৯ এসএম সিস্টেম নজরে আসে। সেগুলি তাঁবুর নিচে ঢাকা। সামনে আসে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার লঞ্চারও। এদিকে ভারতীয় এলাকায় নজরদারি করার জন্য সীমান্ত অঞ্চল ঘেঁষে সেনাছাউনি তৈরি করেছে চীনের সেনাবহিনী।

সূত্রের খবর অনুসারে , গত এপ্রিল মাসের ১১ তারিখ থেকে এই নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল। চলতি সপ্তাহে তা শেষ করেছে চীন। পুরো বিষয়টির উপর নজর রাখছে ভারতের বিমান বাহিনী।

প্রসঙ্গত, লাদাখ ও ফাইভ ফিঙ্গার নিয়ে চীনের সঙ্গে ভারতের টানাপোড়েন চলছেই। এমতাবস্তায় লিপুলেখ এলাকায় ভারতের রাস্তা তৈরির পদক্ষেপ বিতর্কে ঘি ঢেলেছে। তবে ১৭ হাজার ফুট উঁচুতে ভারতের এই ৮০ কিলোমিটারের স্ট্র্যাটেজিক রোড মানস সরোবর, কৈলাস পর্বত, গৌরীকুণ্ড ও রাক্ষসতালের পথ সুগম করেছে। এরপরই কৈলাস সংলগ্ন এলাকায় ব্যাপক নির্মাণকাজ শুরু করে চীন। যার মূল উদ্দেশ্য চীন সেনাবাহিনীর ঘাঁটি গাড়তে সাহায্য করা।

কৈলাস পর্বত, মানস সরোবর ও সংলগ্ন এলাকাগুলো হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের কাছে পবিত্র পীঠস্থান। প্রতি বছর বহু ধর্মপ্রাণ মানুষ এই এলাকাগুলোতে তীর্থ করতে যান। আসেন পর্যটকরাও। কিন্তু ক্রমশ এই তীর্থস্থানটি যেন রণাঙ্গনে পরিণত হচ্ছ। 

No comments:

Post a comment

loading...