Saturday, 8 August 2020

বৃদ্ধাকে লাথি মারাটাই এখন যোগীর রাজ্যের "নিউ নরমাল "

ওয়েব ডেস্ক ৮ই অগাস্ট ২০২০:  সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগরাজের স্বরূপ রানী নেহেরু সরকারি হাসপাতালে এক অসহায় বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগ উঠল হাসপাতালেই কর্মরত এক নিরাপত্তারক্ষীর বিরুদ্ধে। পুরো ঘটনাটি হাসপাতাল চত্বরের সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে। হাসপাতাল চত্বরে অসহায় বৃদ্ধাকে মারধরের ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড় বয়ে যায়। এই ঘটনার সাথে জড়িত নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে ওই বৃদ্ধা হাসপাতালের বাইরে এসে উপস্থিত হন। রাতভর সেখানেই শুয়েছিলেন তিনি। তখনই অভিযুক্ত নিরাপত্তারক্ষী সঞ্জয় মিশ্র এসে ওই বৃদ্ধাকে মারতে শুরু করেন। ভিডিওটিতেও দেখা যাচ্ছে, হাসপাতালের বাইরে বসে থাকা বৃদ্ধাকে ক্রমাগত লাথি এবং ঘুষি মারছেন সঞ্জয়। বৃদ্ধার কাকুতি মিনতিতেও থামানো যাচ্ছে না তাকে। এমনকি বৃদ্ধা তার পায়ে ধরে ক্ষমা চাইলেও, মার থামেনি।

ভিডিওটিতে আরো দেখা যাচ্ছে, অদূরেই দুজন দাঁড়িয়ে ছিলেন। বৃদ্ধার প্রতি এই অমানবিক আচরণ দেখেও সাহায্যার্থে এগিয়ে আসেননি তারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও ভাইরাল হতেই ক্ষোভ উগরে দেন নেটিজেনরা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করতে শুরু করেন তারা। এমনকি, উত্তরপ্রদেশের প্রশাসনের বিরুদ্ধেও অভিযোগ উঠেছে।


নেটিজেনের সমালোচনায় নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। শীঘ্রই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাশাপাশি, গ্রেপ্তার করা হয় সঞ্জয় মিশ্রকে। রাষ্ট্রীয় জনতা দলের তরফ থেকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বলা হয়েছে, বৃদ্ধা মহিলার আর্থিক এবং মানসিক পরিস্থিতি বিচার না করেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অমানবিক আচরণ করেছে তার সাথে। এই আচরণ সভ্য সমাজের বিরুদ্ধে। আরেক নেটিজেনের বক্তব্য, গরীব মানুষেরা স্বাস্থ্যপরিসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন উত্তরপ্রদেশে। এই ঘটনা নিন্দনীয়।

No comments:

Post a comment

loading...