Thursday, 3 September 2020

শেষ পর্যন্ত পিকের টিমকেও কালিমালিপ্ত করার ব্যর্থ প্রয়াস

ওয়েব ডেস্ক ৩রা সেপ্টেম্বর ২০২০ :টিম পিকে’র নামে জালিয়াতির মারাত্মক অভিযোগ তুললেন তৃণমূল নেতা। তাঁর অভিযাগের ভিত্তিতে আসানসোলের কুলটি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এক যুবককে। ঘটনা জানাজানি হতে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। দলের যেসব গলদ চিহ্নিত করে তা সংশোধন করার দায়িত্ব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অর্পণ করেছে টিম প্রশান্ত কিশোরের কাঁধে, সেখানেই কি না তোলাবাজির মতো বিস্ফোরক অভিযোগ! এ নিয়ে কানাঘুষো শুরু হয়ে গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে কুলটি থেকে মৃত্যুঞ্জয় সিং নামে এক যুবক দেখা করেছিলেন যুব তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। তিনি নিজেকে ‘টিম পিকে’র সদস্য বলে পরিচয় দেন। সেইসঙ্গে কমিউনিটি কিচেন চালাবেন বলে মৃত্যুঞ্জয় তাঁকে মোটা অঙ্কের ডোনেশন দেওয়ার কথা বলেন। বিশ্বজিৎবাবুর সংশয় হওয়ায় তিনি মৃত্যুঞ্জয়কে কোনও টাকাপয়সা দেননি। পিকে-র অফিসে ফোন করে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, ওই যুবক বেশ কয়েকমাস আগে কাজ করত সেখানে। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তাঁকে কাজ থেকে বরখাস্ত করা হয়। এরপরই বিশ্বজিৎবাবু কুলটি থানায় মৃত্যুঞ্জয় সিংয়ের নামে অভিযোগ দায়ের করেন।

যুব তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদকের অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে কুলটি থানার পুলিশ। কুলটি থেকে মৃত্যুঞ্জয়কে গ্রেপ্তার করা হয়। এই ঘটনা জেনে তার পরিবারের সদস্যদের প্রতিক্রিয়া, তাদের মতো ভদ্র পরিবারের ছেলে এভাবে প্রতারণায় জড়িয়ে গিয়ে গ্রেপ্তার হয়েছে, ভেবেই খারাপ লাগছে।

রাজ্যের শাসকদলের নেতা, কর্মীদের বারবার দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়া এবং দলের ইমেজ নষ্টের মতো ঘটনা রুখতে নির্বাচনী কৌশলী হিসেবে প্রশান্ত কিশোরকে কাজে লাগিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। প্রশান্ত কিশোর রীতিমত টিম তৈরি করে দুর্নীতি রুখে নেতাদের স্বচ্ছ ভাবমূর্তিকে সামনে আনার কাজে নেমেছেন। ভোটকৌশল হিসেবে একেই তিনি সবচেয়ে শক্তিশালী হাতিয়ার করতে চান। অথচ সেই টিমের নাম করে তোলাবাজির মতো বড়সড় অভিযোগে জড়ালেন সেখানকারই প্রাক্তন কর্মী!

No comments:

Post a comment

loading...