Friday, 4 September 2020

কৃষক ও দিনমজুরদের আত্মহত্যা বেড়ে চললেও কেন্দ্র সরকারের কোনো হুঁশ নেই

ওয়েব ডেস্ক ৪ঠা সেপ্টেম্বর ২০২০ :এনসিআরবি’র তথ্য মতে, ২০১৯ সালে ভারতে মোট ১০ হাজার ২৮১ জন কৃষক ও ৩২ হাজার ৫৬৩ জন দিনমজুর আত্মহত্যা করেছেন। এই সংখ্যা পূর্ববর্তী বছরের চেয়ে ছয় শতাংশ বেশি। ২০১৮ সালে দেশে  ১০ হাজার ৩৫৭ জন কৃষক ও ৩০ হাজার ১৩২ জন দিনমজুর আত্মহত্যা করেছিলেন।


গত এক বছরে দেশে  মোট আত্মহত্যার ঘটনার ৭ দশমিক ৪ শতাংশই হল কৃষকদের আত্মহত্যা। জানা গেছে, কৃষি ক্ষেত্রে ১০ হাজারের বেশি আত্মঘাতীর মধ্যে চাষির সংখ্যা ৫৯৫৭ জন। আর ৪৩২৪ জন হলেন খেতমজুর। কৃষক আত্মহত্যার ক্ষেত্রে নারীদের থেকে অনেক এগিয়ে রয়েছেন পুরুষদের সংখ্যা। ২০১৯ সালে ৫৫৬৩ পুরুষ কৃষক আত্মহত্যা করেছেন। নারী কৃষকের ক্ষেত্রে সংখ্যাটা হল ৩৯৪ জন।

অপরদিকে, খেতমজুরদের মধ্যেও পুরুষ ও মহিলাদের মধ্যে যথেষ্টই ফারাক রয়েছে। খেতমজুরদের মধ্যে ৩,৭৪৯ জন পুরুষ আত্মহত্যা করেছেন আর ৫৭৫ জন নারী। কৃষি ক্ষেত্রে আত্মহত্যার নিরিখে শীর্ষ রয়েছে মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ ও তেলঙ্গানা। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, পশ্চিমবঙ্গে কোনো কৃষক আত্মহত্যা করেননি বলেই উল্লেখ করেছে এনসিআরবি।

প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়া কৃষকদের ২৩ দশমিক ৩ শতাংশ দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। আর ৩ দশমিক ৭ শতাংশ কৃষক স্নাতক পাস। ২০১৯ সালে সমগ্র ভারতে মোট ১ লাখ ৩৯ হাজার ১২৩ জন আত্মহত্যা করেছেন। ২০১৮ সালে আত্মহত্যা করেছিলেন ১ লাখ ৩৪ হাজার ৫১৬ জন।

সবচেয়ে বেশি ঘটেছে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা। ৫৩ দশমিক ৬ শতাংশ মানুষ গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন ২৫ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষ। আর পানিতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ৫ দশমিক ২ শতাংশ মানুষ।


আত্মহত্যার কারণ হিসেবে সবার ওপরে রয়েছে পারিবারিক অশান্তি। পরিসংখ্যান বলছে, মোট আত্মহত্যার সিংহভাগই (৩২ দশমিক ৪ শতাংশ) পারিবারিক বিবাদের কারণে ঘটেছে। শুধুমাত্র বৈবাহিক জীবনের অশান্তি থেকে রেহাই পেতে আত্মহত্যা করেছেন ৫ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ। এছাড়া রোগের যন্ত্রণা থেকে চিরতরে মুক্তি চেয়ে আত্মহত্যা করেছেন ১৭ দশমিক ১ শতাংশ।

No comments:

Post a comment

loading...