Saturday, 19 September 2020

বিরোধীদের চাপে নতিস্বীকার রাজনাথের , ৩৮০০০ বর্গ কিমি চীনের কব্জায়, জানালেন

ওয়েব ডেস্ক ১৯ শে সেপ্টেম্বর ২০২০ :  লাদাখ সীমান্তে ভারতের ৩৮ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা দখল করে রেখেছে চীন। এখন অরুণাচল প্রদেশের প্রায় ৯০ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা নিজেদের বলে দাবি করছে তারা।লাদাখে চীনাবাহিনীর ভূখণ্ড দখল নিয়ে বৃহস্পতিবার সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় প্রথমবারের মতো মুখ খুলে এসব তথ্য জানিয়েছেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। সেই সঙ্গে চীনের বিরুদ্ধে কঠোর হুশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। লাদাখে ভারত ও চীনের চলমান উত্তেজনা নিয়ে রাজনাথ বলেন, ‘সীমান্তে আমাদের সেনা

পাহারা অব্যাহত রাখতে হবে। আসন্ন শীতকালেও লাদাখে সেনা মোতায়েন রাখতে হবে। কারণ এখনও চীন বে-আইনিভাবে প্রায় ৩৮ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা দখল করে রেখেছে। তারা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার শর্ত মানছে না।তারা অব্যাহতভাবে প্ররোচণামূলক আচরণ করে চলেছে।’ চীনকে হুশিয়ারি দিয়ে ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এসব হঠকারী কার্যকলাপ ভারত বরদাশত করবে না। আমরা যুদ্ধ শুরু করতে পারি, শেষ কিন্তু আমাদের হাতে থাকবে না।’তবে শান্তি বজায় রাখার জন্য ভারত এখনও চীনের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যেতে আগ্রহী বলেও জানান রাজনাথ।চীন ভারতের কতটুকু এলাকা দখলে নিয়েছে- গত কয়েক মাস ধরেই বারবার বিরোধীদের এমন প্রশ্নের মুখে পড়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার। কয়েকদিন আগেই ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়, ছয় মাসে ভারতে কোনো চীনা অনুপ্রবেশ হয়নি।তবে এদিন রাজ্যসভায় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ জানালেন, চীন ভারতের ৩৮০০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা দখলে রেখেছে এবং ৬ মাস আগে থেকেই এই এলাকা চীনা বাহিনীর দখলে রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।এর আগে গত মঙ্গলবারও সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় লাদাখ প্রসঙ্গে এক বিবৃতিতে রাজনাথ সিং ইতিহাসের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, লাদাখের ৩৮ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা দখল করে রয়েছে চীন।

১৯৬৩ সালের চীন-পাকিস্তান সীমান্ত চুক্তিতে পাকিস্তান বেআইনিভাবে পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরের পাঁচ হাজার ১৮০ বর্গকিলোমিটার ভারতীয় ভূখণ্ড চীনের হাতে তুলে দিয়েছে।

No comments:

Post a comment

loading...